shasthokothaxyz@gmail.com

+8801953906973

বাসক পাতার ঔষধি গুণাগুণ

বাসকের অনেক গুণ। বাসকের ছাল, পাতা, রস সবই উপকারী। আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে বাসক পাতাকে নানা রোগ সারাতে ব্যবহার করা হয়। সর্দি-কাশির মহা ওষুধ বাসক, একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভেষজ উদ্ভিদ।

fgggg Upma tewari ভিউ: 254

Logo

পোস্ট আপডেট 2021-02-14 20:34:15   9 months ago

গাছটি লম্বায় ১-১৫ মিটার (৩-৫ ফুট) পর্যন্ত হয়। কচি অবস্থায় গাছের গোড়া সবুজ হলেও পরিণত অবস্থায় হাল্কা বেগুনি রঙের মতো দেখায়। পাতাগুলি লম্বায় ৫-১২ সেন্টিমিটারের মতো হয়। ফুল সাদা রঙের এবং গুচ্ছাকারে ফোটে। ফলগুলি ক্যাপসুলের মতো দেখতে।বাসকের তাজা অথবা শুকনো পাতা ওষুধের কাজে লাগে। বাসকের পাতায় ‘ভাসিসিন’ নামীর ক্ষারীয় পদার্থ এবং তেল থাকে। শ্বাসনালীর লালাগ্রন্থিকে সক্রিয় করে বলে বাসক শ্লেষ্মানাশক হিসেবে প্রসিদ্ধ। বাসক পাতার নির্যাস, রস বা সিরাপ শ্লেষ্মা তরল করে নির্গমে সুবিধা করে দেয় বলে সর্দি, কাশি এবং শ্বাসনালীর প্রদাহমূলক ব্যাধিতে বিশেষ উপকারী।

★ নিম্নে বাসক পাতার উপকারিতা সমূহ দেয়া হলো—

?️বাসক পাতায় অ্যান্ট-মাইক্রোবাল উপাদান রয়েছে যা যক্ষা রোগ উপশমে সহায়তা করে।  

?️ বাসক পাতার অ্যান্টি-মাইক্রোবাল উপাদান ব্রাংকাইটিস ও হুপিং কাশি নিরসনেও ব্যবহার করা হয়।

?️ বাসক পাতায় রয়েছে অ্যান্টি – ইনফ্লেমেটরি উপাদান রয়েছে যা বিভিন্ন রকম বাতের ব্যথা, গিটের ব্যাথা  বিভিন্ন রকম ব্যাথা নিরসণে উপযোগ।   

?️ নিয়মিত বাসক পাতার রস সেবন করলে রক্ত পরিস্কার হয়। ফলে রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং রক্তে হিমোগ্লোবিনও পরিমিত পরিমানে থাকে।   

?️ যেহেতু নিয়মিত এই পাতার রস সেবন করলে রক্ত পরিস্কার হয় ফলে ব্রণ দূর হয়, এলার্জি সমস্যা দূর হয়।   

?️ জ্বর, সর্দি, কাশি হলে বাসক পাতার রসের সাথে মধু ও তুলসীপাতার রস মিশিয়ে খেলে জ্বর হলে তাপমাত্রা কমে এবং সর্দি কাশি  হলে বুকে যে শ্লেষা হয় তা বেড় হয়ে যায়।

?️ শ্বাস কষ্টের রোগীদের জন্য বাসক পাতার রস খুবই উপকার।   

?️ মাংসপেশিতে টান লাগলে ঔ স্থানে হলুদ, চুনের সাথে বাসক পাতা বেটে লাগালে উপকার পাওয়া যায়। 

?️ বাসক ফুলের রস ও মধু মিশিয়ে খেলে লিভাটের বিভিন্ন সমস্যা দূর হয় এবং জন্ডিস হলে এই পাতার রস খেলে উপকার পাওয়া যায়। 

?️ গলা ব্যথা নিঃরসনে এই পাতার রস খুবই উপকার। 

?️ প্রস্রাবে জ্বালা পুরা হলে বাসক ফুলের রস খেলে জ্বালা পুরা দূর হয়। 

?️ দাতের মাড়ি দিয়ে রক্ত পরলে ১০/১২ টি বাসক পাতা পানিতে সেদ্ধ করে, সেই পানি দিয়ে কুলিকুচি করলে উপকার পাওয়া যায়।

?️ খিচুনি রোগে খুবই কার্যকর এই পাতার রস।

?️ যাদের গায়ে খুব দূর্গন্ধ হয় তারা এই পাতার রস গায়ে মাখলে এই গন্ধদূর করা যায়।

?️ গায়ের রঙ্গ ফর্সা করার জন্য বাসক পাতার রসের সাথে শঙ্খ চূড় পাউডার লাগাল চোখে পরার মত উজ্জ্বল হয়।



কমেন্ট


সাম্প্রতিক মন্তব্য