shasthokothaxyz@gmail.com

+8801953906973

হলুদ-দুধ খেলে কী হয়?

দুধের পুষ্টিগুণ কারোই অজানা নয়। আমাদের শরীরের জন্য নানাভাবে উপাকারী হলো দুধ। তবে এর সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে খেলে মিলবে আরও অনেক উপকারিতা।

fgggg Sony Akter ভিউ: 205

Logo

পোস্ট আপডেট 2021-03-09 19:12:44   8 months ago

হলুদ হচ্ছে প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়েটিক। এক গ্লাস হালকা গরম দুধের সঙ্গে এক চা চামচ হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে নিয়মিত পান করলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি আরও নানা উপকার পেতে পারি।দুধে আছে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন ডি। নিয়মিত খেলে সাধারণ স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

আসুন জেনে নেই কাঁচা হলুদে কী কী উপকার পাওয়া যায় :

?মাথাব্যথা:

হলুদের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান দুধের পুষ্টির সঙ্গে মিশে প্রাকৃতিক অ্যাসপেরিনের কাজ করে, যা মাথাব্যথা রোধে বেশ কার্যকরী। পাশাপাশি শরীরের বিভিন্ন ধরনের ব্যথা রোধেও এই দুধ উপকারী। 

?কফ এবং ঠান্ডা দূর করে:

হলুদ-দুধ কফ এবং গলার প্রদাহ দূর করার জন্য একটি উপকারী ঘরোয়া দাওয়াই। হলুদের অ্যান্টিসেপটিক এবং এসট্রিজেন্ট উপাদান দুধের সঙ্গে মিলে শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে এবং শুষ্ক কফ দূর করে।

?আরথ্রাইটিস প্রতিরোধে:

হলুদ-দুধে রয়েছে অ্যান্টি ইনফ্লামেটোরি উপাদান, যা গাঁট বা গেরোর শক্তি বাড়ায়। এ ছাড়া ব্যথা দূর করে আরথ্রাইটিসে আক্রান্ত রোগীর পেশির নমনীয়তা বাড়ায়। 

?ঋতুস্রাবের ব্যথা দূর করে:

ঋতুস্রাবের সময় অনেক ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বেঁধে রক্তপাতে বাধা তৈরি হয়। এটি একটি প্রচলিত সমস্যা। নিয়মিত হলুদ-দুধ খেলে এই সমস্যা অনেকটাই দূর হয়। এর মধ্যে শক্তিশালী অ্যান্টিসপ্যাসমোডিক উপাদান রয়েছে, যা ঋতুস্রাবের ব্যথা দূর করে। রক্তপাতের বাধাকে দূর করে স্বাভাবিক হতে সাহায্য করে।

?রক্ত পরিশোধন করে:

হলুদ-দুধ রক্ত পরিশোধিত এবং পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। এর পুষ্টি রক্তে সঞ্চালন ভালো করে। হলুদের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট দেহের লিমপ্যাথিক পদ্ধতি ভালো রাখতে সাহায্য করে।

?হেপাটাইটিস ভাইরাস প্রতিরোধ করে:

হলুদে কারকুমিনের উপস্থিতির জন্য হলুদ-দুধে অ্যান্টিভাইরাল উপাদান থাকে। এটা ভাইরাস প্রতিরোধ করে এবং এর বৃদ্ধিও প্রতিরোধ করে। হলুদ-দুধ রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায় এবং লিভারকে ভাইরাসের আক্রমণ থেকে সুরক্ষা দেয়।






কমেন্ট


সাম্প্রতিক মন্তব্য